দিওয়ালিতে আসছে ‘ডিটেক্টিভ ড্যানি আই.এন.সি’

রামিজ আলি আহমেদ:অঞ্জন দত্ত মানেই নতুনত্ব।অঞ্জন দত্ত মানেই ক্রিয়েটিভিটি।এহেন অঞ্জন দত্তর হাত ধরেই আসছে নতুন
ডিটেক্টিভ।এই ডিটেক্টিভ আর পাঁচটা বাস্তবের ডিটেকটিভের মতোই ডিটেক্টিভ,যে এজেন্সিতে চাকরি করে।ডিটেক্টিভের নাম সুব্রত শৰ্মা।সুব্রত শর্মা এমন একটি চরিত্র যার মধ্যে ভালো মন্দ, দোষ গুন সবই আছে।

এরকম ডিটেক্টিভ সুব্রত শর্মাকে পরিচয় করালেন পরিচালক অঞ্জন দত্ত।ক্লিক-এর নতুন ওয়েব সিরিজ ‘ড্যানি ডিটেক্টিভ আই.এন.সি’-তেই দেখা যাবে সুব্রত শর্মাকে।পাঁচটি এপিসোডের এই ওয়েব সিরিজটির কাহিনি,চিত্রনাট্য ও পরিচালনা অঞ্জন দত্তর।

 

এবার আসি ডিটেক্টিভ ড্যানি আই.এন.সি সম্পর্কে।গল্পের নাম ডিটেক্টিভ ড্যানি আই.এন.সি হলেও আসল ডিটেক্টিভ হলেন সুব্রত শর্মা । এটাই হলো নতুন ডিটেক্টিভ সিরিজের টুইস্ট । সুব্রত নিজের কর্মজীবন শুরু করেন ক্রাইম রিপোর্টার হিসেবে কিন্তু শীঘ্রই সে নিজের চাকরি হারিয়ে ফেলে । আর শেষমেশ একজন প্রবীণ নেশাগ্রস্থ ডিটেক্টিভ ড্যানি’র সেক্রেটারী হয়ে তার অফিস ড্যানি ডিটেক্টিভ আই.এন.সি তে কাজ করেন ।

 

কর্মকর্তা ড্যানি একটি কিডন্যাপ সংক্রান্ত কেস নিয়ে কাজ করতে গিয়ে মারা যান । সুব্রত’র হাতে তখন কেস টি জোর করে তুলে দেওয়া হয় ।


সুব্রত ড্যানির থেকেও ভালো ডিটেক্টিভ হয়ে ওঠেন । সবচেয়ে মজার বিষয় হলো মদ্যপান করতে করতে ড্যানি সবসময় সুব্রতকে বলতেন যে, একজন আসল ডিটেক্টিভ হওয়াটাই বড়ো কথা ।

সেই কথাগুলো সুব্রত’র যে হঠাৎ কাজে লেগে যাবে ডুয়ার্স -এর সত্য ঘটনাটার চর্চা করতে গিয়ে, সে সেটা কখনোই ভাবেনি । সুব্রত শর্মার চরিত্রে অজ্ঞন দত্তর নতুন আবিষ্কার সুপ্রভাত দাস।

অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আছেন অঞ্জন দত্ত,অঙ্কিতা চক্রবর্তী, বরুন চন্দ,সমদর্শী দত্ত, সুদীপা বসু,কৌশিক শীল ।

সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন নীল দত্ত।ওয়েব সিরিজটি এই দিওয়ালিতেই আসতে চলেছে।